Tata Punch Ev

Tata Punch Ev (গর্জে উঠছে পাঞ্চের ইঞ্জিন, নতুন বছরেই আসছে রাস্তায়)-24

New Tata Punch Ev ছোট গাড়ির বড় রূপান্তর: টাটা মোটর্স, ভারতের অন্যতম প্রতিষ্ঠিত এবং শীর্ষস্থানীয় গাড়ি নির্মাতাকারী সংস্থা। 1945 সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকেই, টাটা মোটর্স ভারতীয় গাড়ির জগতে নিজেদের একটা স্বতন্ত্র জায়গা তৈরি করেছে। আজ, টাটা মোটর্সের গাড়িগুলো ভারত জুড়েই এবং বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিক্রি হয়।তারা নিয়মিতভাবে নতুন গাড়ি মডেল লঞ্চ করে, যা ভারতীয় গ্রাহকদের চাহিদা এবং পছন্দকে প্রতিফলিত করে।

Tata Punch Ev
_Tata Punch EV

2023 সালে টাটা মোটরসের সবচেয়ে বেশি বিক্রি, গাড়িগুলির মধ্যে সবথেকে শীর্ষস্থানে জায়গা করে নিয়েছে ” টাটা পাঞ্চ ” গাড়িটি। তাই টাটা মোটর্স তাদের জনপ্রিয় হ্যাচব্যাক সেগমেন্টে এবার ও নিয়ে আসছে একটা নতুন ধামাকা যুক্ত – টাটা পাঞ্চ ইভি। নামেই যেমন ঝাঁকুনি, গাড়িটাও তার চেহারায়, ফিচারে এবং পারফর্মান্সে একেবারে আলাদা।

Punch Ev ডিজাইন এবং স্টাইল

Punch পাঞ্চ ইভি দেখতে এক ঝলক দিলেই মনে হবে, যেন চটপটে ছোট্ট এক দৈত্য রাস্তায় নামতে চলেছে! ডিজাইনে মিলেছে আধুনিকতার ছোঁকা আর পাঞ্চের চেনা ঠাক। গ্রিলের পরিবর্তে থাকছে ব্লু হাইলাইটেড প্যানেল, যা গাড়ির ইলেকট্রিক রূপকে ফুটিয়ে তোলে। হেডলাইটগুলো আরও চাহনীময়, LED ডিআরএল-সহিত। আর পাশের দিকে তাকালেই চোখ কাড়ে নেবে স্মার্ট লাইন, যা গাড়ির দৃঢ়তা আর গতির ইঙ্গিত দেয়।

Tata Punch Ev Decoration
_Design

16 ইঞ্চির অ্যালয় হুইল আর ফ্লেয়ার্ড হুইল আর্চ গাড়িকে আরও স্পোর্টি লুক দেয়। পিছনের দিকেও ডিজাইনে বিশেষ চমক নেই, তবে LED টেললাইট আর হাই-মাউন্টেড ব্রেক লাইট সুরক্ষিত দূরত্ব বজায় রাখতে সাহায্য করবে।

Punch Ev ইঞ্জিন, মাইলেজ

পানচিবি মধ্যে রয়েছে 213.8 hp বৈদ্যুতিক মোটর যা 290Nm টক শক্ত উৎপন্ন করতে পারে। এই শক্তির প্রভাবে গাড়িটি মাত্র 10 সেকেন্ডে মধ্যে 0 থেকে 100 কিমি/ঘণ্টা অতিক্রম করার ক্ষমতা পায়। তাছাড়া গাড়িটিতে 50.1 কিলোওয়াট ব্যাটারি প্যাকেজ যা গাড়িটিকে 305 কিলোমিটার পথ অতিক্রম করার পরিসর অফার করে, ফলে প্রতিদিন যাতায়াত ও ভ্রমণের জন্য যথেষ্ট। গাড়িটি তে দ্রুত চার্জিং এর সুবিধা পাওয়া যায়, যার জন্য গাড়ির ব্যাটারি 30-40 মিনিটের মধ্যে সম্পূর্ণ চার্জ হয়ে ওঠে।

Tata Punch Ev Battery
_Battery

Punch Ev নিরাপত্তা

পাঞ্চ ইভি কেবল চালাতে মজা দেবে, তাই নয়, নিরাপত্তাতেও আপনাকে নিশ্চিন্ত রাখবে। এই গাড়িতে থাকবে একগুচ্ছ উন্নতমানের নিরাপত্তা ফিচার, যা আপনার এবং আপনার প্রিয়জনদের যাত্রাপথকে আরও নিরাপদ করে তুলবে।

  • শক্তিশালী বডি স্ট্রাকচার: পাঞ্চ ইভিতে ব্যবহার করা হয়েছে একটি উন্নতমানের হাই-স্ট্রেংথ স্টিল বডি, যা দুর্ঘটনার সময় যাত্রীদের রক্ষা করবে।
  • অসংখ্য এয়ারব্যাগ: গাড়িতে ড্রাইভার, কো-ড্রাইভার, ফ্রন্ট প্যাসেঞ্জারের জন্য এয়ারব্যাগ থাকবে। কিছু মডেলে সাইড এবং কার্টেন এয়ারব্যাগও দেওয়া হতে পারে।মোট 6টি এয়ার ব্যাগ দেওয়া হয়েছে এই গাড়ির মধ্যে।
  • অ্যান্টি-লক ব্রেকিং সিস্টেম (ABS): এই সিস্টেমটি জরুরি ব্রেকিংয়ের সময় চাকা লক হয়ে যাওয়া রোধ করে, গাড়ির নিয়ন্ত্রণ হাতে রাখতে সাহায্য করে।
  • ইলেকট্রনিক স্ট্যাবিলিটি কন্ট্রোল (ESC): এই সিস্টেমটি গাড়ির গতি এবং দিক ঠিকভাবে বজায় রাখতে সাহায্য করে, ফলে স্লিপিং বা অপ্রত্যাশিত পরিস্থিতিতে নিয়ন্ত্রণ হারানোর ঝুঁকি কমে।
  • হিল হোল্ড কন্ট্রোল: এই সিস্টেমটি ঢালু পথে গাড়ি থামানোর সময় পিছু হয়ে যাওয়া রোধ করে।
Tata Punch Ev features
_Features

এছাড়াও, টাটা পাঞ্চ ইভিতে থাকবে উন্নতমানের সিটবেল্ট, চাইল্ড লক এবং আইসোফিক্স মাউন্ট, যা বিশেষত শিশুদের নিরাপত্তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

Punch Ev প্রযুক্তি

টাটা তার পাঞ্চ ইভি গাড়িটি অনেকগুলো প্রযুক্তির সঙ্গে নতুন বছরে তে আনতে চলেছে।

Tata Punch Ev features
_Technology
  • ৩৬০ ডিগ্রি সারাউন্ডিং ক্যামেরা : এই ক্যামেরার সাহায্যে গাড়ির মধ্যে থেকেও আপনি গাড়ির চারপাশের সমস্ত কিছু দেখতে পাবেন এবং খুব নিরাপদে আপনার গাড়িকে এগিয়ে নিতে পারবেন।
  • গাড়িতে জায়গা : পাঞ্চ গাড়িটিকে এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে, সামনের ডিগ্রিতে অনেকটা ফাঁকা জায়গা পাওয়া যাবে কোন কিছু রাখার জন্য।
  • এয়ার পিউরিফাই: আপনি যতই দূষণ বায়ুর মধ্যে দিয়ে যান না কেন গাড়ির মধ্যে এয়ার পিউরিফাই প্রযুক্তি আপনার অক্সিজেনের কোন ঘাটতি হতে দেবে না এবং আপনাকে সহজেই ড্রাইভিং করতে সাহায্য করবে।
  • কম খরচ: পেট্রলের দাম বাড়ার সাথে সাথে ইলেকট্রিক গাড়ির চাহিদা বাড়ছে। টাটা পাঞ্চ ইভি চালানোর খরচ পেট্রল চালিত গাড়ির চেয়ে অনেক কম হবে।
  • পরিবেশবান্ধব: ইলেকট্রিক গাড়ি কোনো ধরনের ক্ষতিকারক গ্যাস নিঃসরণ করে না, ফলে পরিবেশ রক্ষায় ভূমিকা রাখে।
  • ভরসাযোগ্য ব্র্যান্ড: টাটা মটর্স ভারতে একটি অত্যন্ত ভরসাযোগ্য ব্র্যান্ড হিসেবে পরিচিত। তাই, টাটা পাঞ্চ ইভি কিনতে গ্রাহকদের বিশেষ দ্বিধা থাকবে না।
Tata Punch Ev features
_Sefaty

তাছাড়া গাড়িটিতে আছে এসওএস ফাংশান, মাল্টিপিল ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট আরো অনেক কিছু। যা আপনার গাড়ি চালানোর অভিজ্ঞতা কে আরো বাড়িয়ে তুলবে।

Punch Ev কবে আসছে

পাঞ্চ ইভি ২০২৪ সালের মাঝামাঝি সময়ে ভারতের বাজারে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে। গাড়ির দাম এখনও ঘোষণা করা হয়নি, তবে প্রতিযোগিতামূলক দামে এই গাড়ি বাজারে আসবে বলেই মনে করা হচ্ছে।গাড়িটিকে এখুনি বুক করতে ক্লিক করুন 👈

Tata Punch Ev
_Tata Punch Ev

Similar Posts